ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি এইচএসসি ১ম বর্ষ থেকেই

গ্রুপ স্টাডি কেন করবেন ?
April 9, 2017
আসুন জানি সুন্দর পিচাই সম্পর্কে
April 11, 2017
Show all

ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি এইচএসসি ১ম বর্ষ থেকেই

বারোটি ক্লাশ শেষ করে যখন আমরা বাস্তবতার মুখোমুখি হই , ঠিক তখনি বাস্তবতা আমাদের দিকে আঙ্গুল তুলে দেখিয়ে দেয় যে আমরা শিক্ষা জীবনের বারোটি বছর এমনি এমনি কাটিয়েছি , পেয়েছি কিছু একটা সেটা কি ? সার্টিফিকেট ! সত্যিই তাই সার্টিফিকেট ! ওটা দিয়ে আর যাই ই হোক স্বপ্নের প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওয়া যায় না ।

ঠিকই ধরেছ স্বপ্নের প্রতিষ্ঠানে যেমন- ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় , কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, মেডিকেল কলেজ,  টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়সহ আরও কিছু  পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ।

এখানে বারোটি বছরের শিক্ষা জীবন নিয়ে কথা হচ্ছে না , কথা হচ্ছে ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে যেখানে হাজার হাজার শিক্ষার্থীরা আসে  ভর্তি পরীক্ষা দিতে , তবে সকলে চান্স পায় না , যারা পায় তারাও তোমার আমার মত এইচএসসি  পাস । কিন্তু কেন তুমি পেলে না চান্স ? প্রশ্ন কর নিজেকে , তাদের হাত কি তোমার হাতের চেয়ে বড় , তাদের মাথা কি দুইটা , তারা কি চারটি চোখ দিয়ে দেখে , কিসে তারা এগিয়ে ছিল প্রশ্ন কর নিজেকে ? হ্যাঁ এবার বুঝতে পেরেছ ! তুমি চান্স পাওনি কারন তুমি এইচএসসি পরীক্ষা শেষ করে তবেই ভর্তি পরীক্ষার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছিলে , ফলাফল কি হল ? যারা চান্স পেয়েছে বা স্বপ্নের প্রতিষ্ঠানে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে তারা ভর্তি প্রস্তুতি নেয়া শুরু করেছে এইচএসসি ১ম বর্ষ থেকেই । পার্থক্য শুধু ছিল এখানেই । ১ম বর্ষ থেকেই প্রস্তুতি নেয়ার জন্য কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে যেটা ভবিষ্যতে অনেক কাজে লাগবে ।

 

 

পূর্ব থেকেই জেনে নেওয়া কোন কোন বিষয়ের পরীক্ষা নেয়া হয়ঃ

তুমি যদি বিজ্ঞান ,বাণিজ্য কিংবা মানবিক বিভাগের শিক্ষার্থী হও সেক্ষেত্রে পরীক্ষার বিষয়গুলো অবশ্যই ভিন্ন হবে । বিজ্ঞান বিভাগের জন্য ইংরেজি সহ পদার্থবিজ্ঞান ,রসায়নবিজ্ঞান, গনিত, জীববিজ্ঞান বিষয়ের পরীক্ষা নেয়া হয় । বাণিজ্য বিভাগের জন্য ইংরেজি সহ হিসাববিজ্ঞান, ব্যবস্থাপনা, ফিন্যান্স ও মার্কেটিং বিষয়ের উপর ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হয় ।  মানবিক বিভাগে ইংরেজি , বাংলা ও সাধারণ জ্ঞানের উপর ভর্তি পরীক্ষা নেয়া হয় । বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি প্রক্রিয়া আলাদা আলাদা হতে পারে । সেই ক্ষেত্রে নিজ নিজ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ওয়েব সাইট থেকে তথ্য নিয়ে জানতে হবে ।

 

 

যেকোন কোচিং সেন্টারের সহায়তা নিয়ে হবেঃ

এইচএসসি পরীক্ষার পর সকল শিক্ষার্থীরা ভর্তি কোচিং এ আসতে থাকে এবং কোচিং এ ভর্তি হয়ে ক্লাশ শুরু করে । এখানে ছাত্র ছাত্রীরা কিছু বাস্তবতার সম্মুখীন হয় । সেটা কেমন ? এইচএসসি পরীক্ষা শেষ করে কোচিং ক্লাশ শুরু হতে সময় নেয় এক মাসের থেকেও বেশি । এই সময়টা ছাত্র ছাত্রীদের অপেক্ষা করতে করতে চলে যায় । ক্লাশ শুরু হয় সকালে কিন্তু শেষ হয় বিকালে । বাসায় গিয়ে খাওয়া গোসল করতে গিয়ে রাত প্রায় । তারপর ক্লান্তি এবং বিশ্রাম । রাতের কিছু সময় বাকি থাকে পড়াশুনার জন্য কিন্তু সেটা যথেষ্ট নয় । এই ভাবে তিন মাস সময় ও হাতে থাকে না , চলে আসে সেই যুদ্ধের সময়টা । প্রস্তুতি বলতে কোচিং এ আসা ও যাওয়া ! তাই এই অল্প সময় কতটুকুই বা সময় পেলে ভর্তি যুদ্ধে প্রস্তুতির জন্য । তাই এইচএসসি পড়াকালীন তোমরা একটু সময় বের করে যে কোন কোচিং এর সহায়তা নিতে পার । এতে অনেক দূর এগিয়ে থাকবে ভর্তি প্রস্তুতিতে ।

 

 

মার্কস বন্টন সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবেঃ

ভর্তি পরীক্ষার বিষয় ভিত্তিক মার্কস বন্টন সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা রাখতে হবে । কোন বিষয়ের উপর কত নম্বর থাকবে সেটা আগে থেকেই জানা জরুরি । এর ফলে বিষয় জ্ঞান বৃদ্ধিতে সহায়তা করে এবং নিজের দুর্বলতার জায়গাগুলো বের করা যায় । তাছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় ভুল উত্তরের জন্য নম্বর কর্তন করা হয় , এটা জানা আরও বেশি জরুরি ।

 

 

সিনিয়রদের সাহায্য নিতে হবেঃ

সিনিয়র বড় ভাই/বোন যারা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছে তাদের কাছ থেকে সর্বদা বিভিন্ন টিপস নিতে হবে ভর্তি পরীক্ষা সংক্রান্ত । হয়তো পাড়া প্রতিবেশি কিংবা আত্মীয় স্বজনদের ভিতর অনেকেই থাকেন যারা এই বিষয়ে সাহায্য করবে নিজের জ্ঞান বৃদ্ধি করতে । তাদের অভিজ্ঞতা ও সহযোগিতা তোমাদের লক্ষ্যকে আরও শক্তিশালী করবে ।

 

এইচ এস সি পরীক্ষার পরে ফলাফল কেমন হবে চিন্তা করেই তোমার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলা উচিৎ যে আসলে তুমি কোন দিকে যাবে। যদি তুমি মানবিক বা ব্যবসা শিক্ষা শাখার শিক্ষার্থী হও তাহলে তোমার সিদ্ধান্ত খুব সহজ আর তাহল তোমাকে যেকোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে হবে। আর তুমি যদি বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী হও তাহলে তোমাকে একটু টেকনিক্যালি সিদ্ধান্ত নিতে হবে। খুব ভালো জিপিএ না থাকলে ইঞ্জিনিওয়ারিং বা অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর দিকে লক্ষ্য স্থির করাই শ্রেয় কারন মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষাতে এইচ এস সি এবং এস এস সি এর ফলাফলের ভুমিকা অনেক বেশি। প্রথম থেকেই এই সিদ্ধান্ত না নিতে পারলে তোমার ফলাফল খারাপ হবার সম্ভাবনা বেশি। তাই আর দেরি না করে এখন থেকেই অর্থাৎ এইচএসসি ১ম বর্ষ থেকেই নিজের লক্ষ্য স্থির করে পরিকল্পনা মাফিক সামনের দিকে এগিয়ে যাও ।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *