স্ব-যত্ন অনুশীলনের কিছু ধারনা
July 30, 2017
পড়াশোনার জন্য প্রস্তুতি নিন সঠিক নিয়মে।
August 6, 2017
Show all

লেখকদের রয়েছে এমন এক পারদর্শিতা যা আপনাকে মুগ্ধ করবে তাদের লেখা পড়ার জন্য পাশাপাশি আপনাকে জানিয়ে দেবে অজানা অনেক তথ্য।আর লেখক হিসেবে আপনার ধারনা গুলো পাঠকদের সামনে এমনভাবে তুলে ধরতে হবে যেন আপনি সর্বোপরি মনোযোগ আকর্ষণ করতে সক্ষম হন।

  • আপনার লেখার পাঠকদের চিহ্নিত করুন। স্কুল বা কলেজের স্টুডেন্ট অথবা স্কুল বা কলেজের টিচার ও পাঠক হতে পারে।তাই পাঠকদের প্রতি নজর রেখে এমন একটি ভুমিকা লিখুন যাতে পাঠকরা বাকি লিখা গুলো পড়তে আগ্রহী হয়।এমন একটি ভুমিকা লিখুন যাতে পাঠকরা ভুমিকা পড়েই বুঝতে পারে আপনি কি বিষয়ে লিখছেন আর এটা পড়ে তারা কি কি জানতে পারবে। অন্যথায় আপনার পাঠকরা ভুমিকা পড়েই আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে।
  • যে বিষয়টি সম্পর্কে লিখছেন তা সম্পর্কে ভালো করে জানুন।একটি আকর্ষণীয় লেখা লিখতে হলে সেই বিষয়ের প্রতি আপনার আগ্রহ থাকতে হবে। সব সময় মনে রাখতে হবে লেখায় এমন অন্যন্য কিছু রাখতে হবে যেন তা আমাদের ব্যাক্তিত্ব কে ফুটিয়ে তোলে। আপনি যে কোন বিষয়ের উপরেই লিখতে পারেন যা আপনি ভালোবাসেন, উদাহরণ স্বরূপ বলা যায় ফ্যাশন, খাদ্য, ভ্রমণ, প্রযুক্তি বা অন্য যে কোন কিছুই।
  • সময়ের সাথে সাথে প্রাসঙ্গিক ও সামঞ্জস্যপূর্ণ হয় কি না তাও খেয়াল রাখতে হবে।সব বিষয়ে লিখতে যাবেন না, শুধু যে বিষয় গুলোতে আপনার পারদর্শিতা আছে তা নিয়েই লেখার চেষ্টা করুন।

  • পড়া হচ্ছে একজন সফল লেখক হয়ে উঠার মূল চাবিকাঠি। লেখার নতুন নতুন পথ এবং দক্ষতা বাড়ানোর জন্য আমাদেরকে অন্য অনেকের লেখা পড়তে হবে। এটি চিন্তা ও তথ্যের বিকাশ কে পরিপূর্ণ করে যা আমাদের লিখা শুরু করার জন্য অবশ্যই দরকার। আপনার নিজেকে সবসময় একজন ছাত্র মনে করে শেখার জন্য তৈরী থাকতে হবে। আপনার যেই বিষয়ের উপর আগ্রহ রয়েছে সেই সম্পর্কে অন্যদের লেখা পড়তে হবে। তাই নিয়মিত পড়ার চেষ্টা করুন।কিন্তু আপনার লেখা আপনার মতো করে লিখুন। অন্য কাউকে নকল করার দরকার নেই।
  • সব সময় একই ধরনের স্টাইল বা কণ্ঠস্বর লেখায় ব্যবহার করবেন না। একেক সময় একেক স্টাইল এ লিখে আপনার পাঠকদের প্রতিক্রিয়া পরীক্ষা করুন, এতে ভিন্নতা আসবে এবং আপনার পাঠকরা সব ধরনের লেখা পড়তে আগ্রহী হবে।
  • কন্টেন্ট মাঝে মাঝে বড় এবং মাঝে মাঝে ছোট করুন। ছোট লেখা সব সময়ই আকর্ষনীয় হয় আর বড় লেখার কন্টেন্ট তথ্যপূর্ণ হয়। তাই ছোট, বড় কন্টেন্ট লিখে পাঠকদের দুই ধরনের তথ্য প্রদান করুন।

  • আপনি বিরতিতে গেলে বা একটি লেখা থেকে আরেকটি লেখার বিরতি যদি লম্বা সময়ের হয় তবে লেখক পাঠকের মন থেকে দূরে সরে যেতে পারে, তাই বেশী বিরতি না নেয়াই ভালো।
  • আপনার লেখাটি প্রকাশ করার পূর্বে লেখাটি কয়েকবার পড়ে নিন এবং প্রয়োজন অনুসারে এডিট করুন।
  • লেখার সময় চেষ্টা করুন আপনার লেখার মধ্যে পাঠকদের কোনো প্রশ্ন করতে, এতে আপনার পাঠকরা মনে করবে এরা আপনার ব্লগ কমিউনিটির একজন সদস্য এবং তাদের উত্তর থেকে আপনি অনেক কিছু শিখতে পারবেন।

এছাড়াও আরও কিছু বিষয়ে খেয়াল রাখুন

  • সময় নির্ধারণ করুন
  • লিখতেই হবে এমন চাপ নেবেন না
  • নিজেই নিজের সাথে কমিটমেন্ট এ আসুন
  • পুরো লেখাকে কয়েকটি ভাগে ভাগ করুন আর সেই অনুযায়ী ফোকাস করুন।
  • লেখায় মনোযোগ না থাকলে

১। ব্রেক নিন, মাইন্ড ফ্রেশ করুন

২। সময় নিয়ে লিখুন, প্রয়োজনে কয়েকদিন সময় নিন

  • নিজেকে রিফ্রেশ করুন, লেখা শুরুর আগে বা মাঝে চা বানিয়ে নিন, একটু বাগান থেকে ঘুরে আসুন।
  • আজ এবং আগামীকালের লেখার মাঝে সামঞ্জস্য রাখুন, এমন জায়গায় শেষ করবেন না যাতে খেই হারিয়ে যায়। বরং একটি নির্দিস্ট ইন্টারেস্টিং পার্ট কালকের জন্য রেখে দিন, যাতে পুনরায় লেখা শুরু করতে আপনার ভালো লাগে।
  • প্রয়োজনে লেখা শুরুর আগে কিছু বুলেট পয়েন্ট লিখে নিন যাতে এর উপর ভিত্তি করে আপনি লেখা শেষ করতে পারেন, এতে করে অপ্রয়োজনীয় বুলেট গুলো ও বাদ পরবে।
  • তাড়াহুড়ো করবেন না, সময় নিন, তাড়াহুড়ায় আসল জিনিস ই লিখতে ভুল যেতে পারেন।
  • নিয়মিত লিখুন, এতে করে প্রথমে কিছু ত্রুটি থাকলে ও পরে দক্ষতা বাড়বে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *