নিজেকে আরও বেশি কর্মক্ষম করে তোলার উপায়

আপনার সময় কোথায় যাচ্ছে !!
January 22, 2018
শিশুদের ইন্টারনেট আসক্তি : প্রতিকার ও প্রতিরোধ
January 24, 2018
Show all

নিজেকে আরও বেশি কর্মক্ষম করে তোলার উপায়

কর্মক্ষেত্রে সফলতা পেতে নিজেকে আরও একটু কর্মঠ ও কর্মক্ষম করে তুলতে চায় সবাই । অনেকেরই অফিসে  একের পর এক জমতে থাকে  কাজ,  কিন্তু কাজগুলো করে শেষ করা হয় না , এর পেছনে সময় বের করা এবং পারিপার্শ্বিক অন্যান্য অনেক কারন থাকে।  শুধুমাত্র নিজের একটু বুদ্ধি কাজে লাগানো এবং তা অভ্যাসে পরিণত করার মাধ্যমেই নিজেকে আরও একটু কর্মঠ ও কর্মক্ষম করে তোলা সম্ভব।কিভাবে আপনি ফোকাস করবেন, কোন কাজকে প্রাধান্য দেবেন, কিভাবে সময় ম্যানেজ করবেন জানতে পারবেন কয়েকটি প্রশ্নের উত্তর থেকে।

প্রথমেই আমরা সহজ কিন্তু ফলপ্রসূ একটা এক্সারসাইজ করব।

প্রথমেই আপনি কিছু কেন –র উত্তর দিন । আপনি সময় নিয়ে চিন্তা করুন এবং ভালভাবে ভেবে উত্তর দিন।

প্রশ্নঃ কেন আপনি আরও কার্যক্ষম হতে চান?

 

এই প্রশ্নের উত্তর ভালভাবে চিন্তা করে উত্তর বের করুন।

সাধারণত মানুষ যে উত্তর দেয় তাকে দুটি অপশনে  ফেলা যায়।

অপশন ১- সময়ঃ আমি কম সময়ে বেশি কাজ করতে চাই।

অপশন ২- সম্পদঃ আমি আমার কর্মক্ষেত্রে ভালো অবস্থানে যেতে চাই যাতে আমি খুব দ্রুত পদন্নোতি  আর  increment  পাই ।

আপনার উত্তরকে কি এই দুটোর কোন একটি অপশনে ফেলা যায়? Be honest কারন আপনার উত্তর কেউ দেখছে না বা কেউ এই উত্তরকে judge ও করছে না।;D

যাই হোক, আসলে এই দুটি অপশনের কোনটিই প্রকৃত উত্তর নয়। আপনাকে আরও গভীর ভাবে এই উত্তর নিয়ে ভাবতে হবে ।  এখন আমরা  Toyota –এর Taiichi Ohno –এর উদ্ভাবিত একটা টেকনিক অনুসারে (যাক বলে Five Whys ) আপনার উত্তরকে আরও

ভাঙ্গবো। আসুন দেখি পাঁচ বার আপনার উত্তরকে কেন প্রশ্ন করে কি পাওয়া যায়। আমি নিজের উত্তরগুলকেই এখানে লিখছি।

১। কেন আপনি আরও কার্যক্ষম হতে চান?

কারন আমি কম সময়ে আমার সব কাজ শেষ করতে চাই।

২। কেন?

কারন আমি কর্মদিবসের অল্প সময়ে অনেক কাজ করে বাকি সময় আরাম করতে চাই।

৩। কেন?

কারন আমি সারা দিন ধরে কাজ করতে চাই না বরং বাকি সময় আমি জা করতে পছন্দ করি এবং যাদের সাথে সময় কাটাতে ভালবাসি সেদিকে সময় ও মনযোগ দিতে চাই ।

৪। কেন?

কারন এতে আমার কর্ম জীবন ও ব্যক্তিগত জীবনে ব্যালান্স থাকে আর আমাকে শান্তিদেয়।

৫। কেন?

কারন আমি মনে করি কাজ ছাড়াও জীবনে করার আরও অনেক কিছু আছে।

এভাবে যখন প্রথমে আমি উত্তর দিয়েছিলাম আমি কম সময়ে বেশি কাজ করতে চাই এর উত্তর আসলে ছিল আমি অল্প সময়ে সব কাজ শেষ কর বাকি সময় নিজের মত কাটাতে চাই। এছাড়া অন্যদের ক্ষেত্রে আরও যেসব কারন বের হয়ে  আসতে পারে সেগুলো হল –

  • আমার পরিবার ও বাচ্চাদের সাথে সময় কাটাতে চাই।
  • কমপক্ষে এক বছরের একটা ছুটি চাই যাতে নানা দেশ ঘুরে বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতির সাথে পরিচিত হতে পারি ।
  • চাকরির পাশাপাশি কোন সাইড বিজনেস করতে চাই যেটা করার জন্য আমি সব সময় অপেক্ষা করেছিলাম।
  • যাতে আমি আমার নিজের কাজ গুলোও ভালভাবে করতে পারি।

এবার আপনি নিজেকে কমপক্ষে ৫ বার  এইভাবে প্রশ্ন করতে থাকুন , কোন ধাপকেই বাদ দেবেন না। আপনার এই কেন –এর উত্তর  খুঁজে বের করুন । বাকি কাজ আপনার জন্য খুবই সহজ।

আসলে একটু স্মার্টলি পরিকল্পনা  করতে জানলে অল্প পরিশ্রমেই ভালো ফলাফল পাওয়া সম্ভব। তাই নিজেকে আরও কর্মঠ করে তোলার ক্ষেত্রে একটু স্মার্ট চিন্তা করা উচিত। সবদিক বিবেচনা করা, সময় নির্ধারণ করা, সঠিকভাবে পরিচালনা করা এবং নিয়মকানুন মেনে চলার মতো সকল দিক সঠিকভাবে সম্পাদন করে ভালো ফলাফল পাওয়াই লক্ষ্য হওয়া উচিত সকলের। এতে করে সফলতা ও উন্নতি অনেক দ্রুত পাওয়া সম্ভব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *